Recents in Beach

চোখ খুলছে ও বন্ধ করছে ১০০ বছর আগের মমি

এই র'হস্যজনক মমিটি হল ২ বছরের শি'শু রোসালিয়া লোম্বার্দোর। ১৯২০ সালে নিউমোনিয়াতে আক্রান্ত হয়ে মা'রা যায় ছোট্ট রোসালিয়া। মে'য়ের মৃ'ত্যুতে শোকে ভেঙে পড়েন তার বাবা।
পরে তিনি মৃ'ত মে'য়ের মমি করতে ডাকেন দেহসংরক্ষক আলেফ্রেদো সালাফিয়াকে। সিসিলির কাপুচিন সমাধিতে হাজার হাজার মমির সঙ্গে রাখা হয় ছোট্ট রোসালিয়ার মমিকে। রোজ রাতে রোসালিয়ার মমিকে দেখতে যেতেন তার বাবা। মে'য়ের মমিতে হাত দিয়ে বসে বসে কাঁদতেন বাবা।

পরে সবার নজরে পড়ে আর পাঁচটা মমির থেকে রোসালিয়ারটা একেবারে আলাদা। রোসালিয়ার চোখ নড়চড়ে, খোলে-বন্ধ হয়। রোসালিয়ার নিষ্পাপ নীল চোখে ধ'রা পড়ে আবেগ, কা'ন্না-হাসি। এই মমির নাম রাখা হয় ‘স্লিপিং বিউটি’। স্লিপিং বিউটির চোখের টানে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসে হাজার হাজার পর্যট'ক। অনেকেই বিশ্বা'স করতে শুরু করেন বাবার ভালবাসায় ফের বেঁচে ফিরেছেন রোসালিয়া।
অনেকে দাবি করতে শুরু করেন, মমি ভেঙে রোসালিয়াকে উ'দ্ধার করা হোক। কিন্তু বিশ্বা'স যেখানে শেষ হয়, সেখানেই থাবা বসায় যুক্তি। ওই সমাধিস্থলের কিউরেটর তথা অ্যানথ্রোপলজিস্ট দারিও পিওমবিনো এই ‘স্লিপিং বিউটি’ র'হস্যের সমাধান করেন। মিউজিয়ামে এই মমিটিকে সামান্য সরানো হয়, এতে আলোর এক অদ্ভুত সমীকরণ তৈরী হয়। আলোর জাদুতেই মনে হয় রোসালিয়ার মমির চোখ নড়াচড়া করছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ