Recents in Beach

সালমান শাহকে নিয়ে বেফাঁ'স মন্তব্যে ভিলেন সাজলেন ফারুক

তাকে বলা হয় বাংলা চ’লচ্চিত্রের রাজপুত্র। এলেন দেখলেন জয় করলেন আবার ধু’মকেতুর মতো চলেও গেলেন। যে চলে যাওয়া দুই যুগ আগে। তবে এখনও তিনি বাংলা সি’নেমা'র দর্শকের মাঝে জী’বন্ত হয়ে ধ'রা দিচ্ছেন তার অ’ভিনীত সিনেমা'র মা’ধ্যমে। বলছি বাংলা সিনেমা'র অম'র নায়ক সালমান শাহরে কথা।সম্প্রতি ঢাকাই সিনেমা'র এই জনপ্রিয় নায়কে নিয়ে চলচ্চিত্রের মিঞা ভাই খ্যাত চিত্রনায়ক ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান একটি ভিডিও সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। যেটি সা’মাজিক যো’গাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভা’ইরাল হয়েছে।


১৫ সেকেন্ডের ওই ভি’ডিওতে ফারুক বলেন, সালমান শাহ কী'? আহাম'রি কি সে এমন, এতো কথা বলো, কী' সে… তোমা'র হাজারো সালমান শাহকে বিট করে দিচ্ছে আমাদের শাকিব। কোথায় নিয়ে চলে গেছে শাকিব। এগুলো ধরলে আম'রা কিন্তু কথা বলতে পারি।বাংলা সিনেমা'র একসময়কার তুমুল জনপ্রিয় নায়ক সালমান শাহকে নিয়ে কিংবদন্তি ফারুকের এমন ম’ন্তব্যে ফে’সবুক জুড়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। তার ক্লিপটি ভা’ইরাল হওয়ার পর সালমান ভক্তরা বেশ নেকিবাচকভাবে দেখছেন। ভি’ডিও’র ক্যা’পশন হিসেবে লিখা হয়েছে, ফারুক সাহেব নিজেই নিজের শ্রদ্ধার জা’য়গাটিকে ন’ষ্ট করলো।

সালমান শাহের ভক্তরা মন্তব্য করেছেন, ‘সালমান শাহকে এরকম কথা বলার কারণ, ফারুক সাহেবের ‘সুজন সখী’ ছবিতে তার চেয়ে বেশি দর্শক দেখছেন। ফারুক মিয়া উনার এই কথাগুলোর জন্য সবার কাছে নিন্দিত হয়ে গেছেন।এমডি সুমন লিখেছেন, মামা ফারুক সাহেব হঠাৎ করে ম'রহুম সালমান শাহর প্রতি এত রেগে গেলেন কেন? যেই শাকিব খান আমাদের কোনো ভাল কিছু উপহার দিতে পারে নাই, শাকিব খানের শুধু আছে অ্যা’কশন।

১৯৯৩ সালে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবির মাধ্যমে ঢাকাই সিনেমায় অ'ভিষেক হয় সালমান শাহর। মাত্র সাড়ে তিন বছরের ক্যারিয়ারে উপহার দিয়েছেন ২৭টি দর্শকপ্রিয় চলচ্চিত্র।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর আকস্মিক মৃ'ত্যুতে ঢাকাই চলচ্চিত্র অঙ্গনে সব থেকে বড় শূন্যতা তৈরি করেন তিনি। তার মৃ'ত্যুটি আত্মহ'ত্যা না হ'ত্যা তা নিয়েই চলছে আইনি ল'ড়াই।

Post a Comment

0 Comments